আগামী চার মাসের মধ্যে রেল ট্র্যাক বসানোর কাজ শেষ হবে: রেলমন্ত্রী

জাতীয় পদ্মাসেতু মাদারীপুর শিবচর

পদ্মা সেতুতে রেল ট্র্যাক বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। শনিবার (২০ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে সেতুর জাজিরা প্রান্তে ট্র্যাক বসানোর কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন।

এ সময় তিনি বলেন, আগামী চার মাসের মধ্যে ট্র্যাক বসানোর কাজ শেষ হবে। এই রেলসেতু দিয়ে যাত্রীবাহী ছয়টি ট্রেন চলবে।

পদ্মা সেতু সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, আগামী বছর পদ্মা সেতু দিয়ে ট্রেন চলবে। সেই লক্ষে কাজ চলছে। রেললাইন বসানোর বেশিরভাগ কাজ করা হবে রাতে। পদ্মা সেতু দিয়ে নিয়মিত চলবে গাড়ি। তাই গাড়ির গতি কমিয়ে রেল ট্র্যাক বসানোর কাজ চলবে। প্রথমে ঢাকা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে ফরিদপুরের ভাঙ্গা পর্যন্ত ট্রেন চালু হবে।

২০১৮ সালে পদ্মা সেতু ও দুই প্রান্তে রেললাইন নির্মাণের কাজ শুরু হয়। কাজ শুরুর প্রথম থেকেই যানবাহন চালুর সঙ্গে সঙ্গে ট্রেন চলাচলের পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু তা সম্ভব হয়নি। রেলের এই প্রকল্পে জিটুজি পদ্ধতিতে অর্থায়ন করছে চীন। যার মেয়াদ ২০২৪ সালের জুন পর্যন্ত। রেললাইন ও এর অবকাঠামোর ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৯ হাজার ২৪৭ কোটি টাকা। ঢাকা থেকে মাওয়া অংশের কাজ হয়েছে ৬২ শতাংশ ও মাওয়া থেকে ভাঙ্গা অংশের কাজ হয়েছে ৮১ শতাংশ। ভাঙ্গা থেকে যশোর পর্যন্ত অংশের ৫২ শতাংশ কাজ হয়েছে।

রেল ট্র্যাক বসানোর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরীসহ রেল মন্ত্রণালয় ও পদ্মা সেতু সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.